মহাভারতম্

ভরতবংশীয়দের মধ্যেকার মহাযুদ্ধের কথাই হল মহাভারত। এর রচয়িতা বেদব্যাস। এই মহাকাব্যে ভারতবর্ষের শিক্ষা, সংস্কৃতি, সভ্যতা প্রকাশ পেয়েছে। মহাভারতে আদর্শের প্রতীক শ্রীকৃষ্ণ, সত্যের প্রতীক যুধিষ্ঠির, কর্মবীর অর্জুন, জ্ঞানবীর বিদুর, ধর্মের প্রতীক ভীষ্ম, দাতা কর্ণ, তেজস্বিনী দ্রৌপদী – এরা প্রত্যেকে আমাদের জীবনে প্রভাব বিস্তার করেছে। শ্রীমদ্ভগবতগীতা এর প্রাণ। ভারতবর্ষের প্রকৃত মানসিকতা এই মহাকাব্যে প্রতিফলিত হয়েছে।

ভরতবংশীয়ানাং মহাযুদ্ধস্য বিরাট-কথায়াঃ নাম মহাভারতম্। অস্য রচয়িতা বেদব্যাসঃ। অস্মিন্ মহাকাব্যে ভারতবর্ষস্য শিক্ষা-সংস্কৃতিঃ, সভ্যতা প্রকটিতাঃ সন্তি। মহাভারতস্য আদর্শানাং প্রতীকানি শ্রীকৃষ্ণঃ, সত্যস্য প্রতীকরূপেণ যুধিষ্ঠিরঃ, কর্মবীরঃ অর্জুনঃ, জ্ঞানবীরঃ বিদুরঃ, ধর্মস্য প্রতীকঃ ভীষ্মঃ, দানস্য কর্ণঃ, তেজস্বিনী দ্রৌপদী – এতৎ সর্বম্ অস্মাকং জীবনে প্রভাবং বিস্তারয়তি। শ্রীমদ্ভগবদ্গীতা অস্য প্রাণস্বরূপিণী। ভারতবর্ষস্য যথার্থং মানসিকতা অস্মিন্ মহাকাব্যে প্রতিফলিতা।

error: সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত