টীকা লেখো : চার্লস উডের প্রতিবেদন

‘বোর্ড অফ কন্ট্রোলে’র সভাপতি চার্লস উড ভারতে পাশ্চাত্য শিক্ষার প্রসারের জন্য ১৮৫৪ খ্রিস্টাব্দে একটি নির্দেশনামা প্রকাশ করেন। এই নির্দেশনামা ‘চার্লস উডের প্রতিবেদন’ (Wood’s Despatch) নামে খ্যাত।

সুপারিশ: উড়ের নির্দেশনামা সুপারিশগুলি হল— ক] শিক্ষার প্রসারের জন্য স্বতন্ত্র শিক্ষাবিভাগ গঠন করা। খ] কলকাতা, বোম্বাই ও মাদ্রাজে একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা। গ] সুদক্ষ শিক্ষক তৈরির জন্য শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ কলেজ স্থাপন করা। ঘ] নারীশিক্ষার প্রসার ঘটানো।

ফলাফল: চার্লস উডের নির্দেশনামার ফলে—

ক] বড়োলাট লর্ড ডালহৌসি বাংলা, বোম্বাই, পাঞ্জাব প্রভৃতি প্রদেশে শিক্ষাদপ্তর প্রতিষ্ঠা করেন।

খ]  ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দে কলকাতা, বোম্বাই ও মাদ্রাজে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়।

পরিশেষে বলা যায়, প্রথম দিকে ভারতে পাশ্চাত্য শিক্ষার গতি ছিল অত্যন্ত ধীর। উডের রিপোর্টের ফলে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে বহু স্কুল, কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। কলকাতা, বোম্বাই ও মাদ্রাজে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। ভারতীয় শিক্ষার ইতিহাসে এটি ছিল উল্লেখযোগ্য ঘটনা। এইজন্য উড-এর নির্দেশনামাকে শিক্ষার ‘মহাসনদ’ বা ‘ম্যাগনাকার্টা’ বলা হয়।

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা
error: সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত