‘বাদার ভাত খেলে তবে তো আসল বাদারটার খোঁজ পেয়ে যাবে একদিন’—বাদা কাকে বলে? এরকম মনে হওয়ার কারণ কী?

[] প্রথম অংশ—‘বাদা’ কথার আক্ষরিক অর্থ জলময় নিচু অঞ্চল। এইধরনের জলা জমিতে ভালো ধান চাষ হয়। দক্ষিণবঙ্গের সুন্দরবন অঞ্চলকে ‘বাদা’ হিসাবে চিহ্নিত করা হয়।

[] দ্বিতীয় অংশ—উচ্ছব সুন্দরবনের বাদা অঞ্চলের বাসিন্দা। মনিব সতীশ মিস্ত্রির ধানে মড়ক লাগলে ভূমিহীন উচ্ছবের সমস্যার সূত্রপাত হয়। একদিন মাতলার ভয়ঙ্কর বন্যায় তার গোটা পরিবার তলিয়ে যায়। দীর্ঘদিনের অনাহার থেকে মুক্তি পেতে উচ্ছব পাড়ি দেয় কলকাতা শহরে।

          শহরের একটি ধনী বাড়িতে পেটভাতায় কাঠ কাটার কাজ নেয় উচ্ছব, যে বাড়িতে বুড়ো কর্তার জন্য হোম-যজ্ঞের প্রস্তুতি চলছে। উচ্ছব বাসিনীর মারফত একসময় জানতে পারে এই বাড়িতে পাঁচভাগে ভাত রান্না হয় আর সেইসব চাল আসে বাদা থেকে। বড়ো বাড়ির এই ঐশ্বর্য দেখে বিস্মিত হয় উচ্ছব। উপোসী পরিবারের কথা মনে পড়ে যায় উচ্ছবের। উচ্ছব তার অসহায়, নিরাপত্তাহীন জীবন থেকে মুক্তি পেতে, খাবারের সামান্য চাহিদাটুকু মেটাতে সেই বাদার খোঁজ করতে চেয়েছে। সে সমস্ত বঞ্চিত, অভুক্ত মানুষদের কাছে পৌঁছে দেবে সে ‘বিস্ময়কর বাদা’র সন্ধান। তারা সবাই ভরপেট খেয়ে বাঁচতে চায় এই পৃথিবীতে।

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা
error: সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত